বন্দর প্রতিনিধি: বন্দরে বিয়ের ১ বছর পার না হতেই দুই লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে নববধূ আইরিন আক্তার (১৯) শাররীক নির্যাতন করে বাড়ীতে বিতারতি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে যৌতুক লোভী স্বামী ও শ্বশুড়ের বিরুদ্ধে। গত ১৯ এপ্রিল রাত সাড়ে ৯টায় বন্দর উপজেলার মিনারবাড়ী এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। এ ব্যাপারে নববধূ বাদী হয়ে বুধবার দুপুরে যৌতুক লোভী স্বামী ও শ্বশুড়সহ ৩ জনের নাম উল্লেখ্র করে বন্দর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত ৯ মাস পূর্বে বন্দর উপজেলার ভদ্রাসন এলাকার প্রবাসী জসিম মিয়ার মেয়ে আইরিন আক্তারের সাথে একই উপজেলার মিনারবাড়ী এলাকার জজ মিয়ার ছেলে আমিন আহাম্মেদের সাথে ইসলামী শরিয়ত মোতাবেক বিয়ে হয়। বিয়ের পর নববধূ আইরিনের পরিবার মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে স্বামী আমিন আহাম্মেদ ও তার পরিবারকে নগদ টাকা স্বর্ণালংকারসহ আসভাবপত্র যৌতুক হিসেবে প্রদান করে মেয়ে পক্ষ। বিয়ের ১ বছর পর না হতেই যৌতুক লোভী স্বামী ও তার পিতা জজ মিয়া ও বড় ভাইয়ের স্ত্রী কনিকা যৌতুকের জন্য নববধূকে বিভিন্ন ভাবে চাপ সৃষ্টি করে আসছে। এর ধারাবাহিকতায় গত ১৯ এপ্রিল রাতে যৌতুক লোভী স্বামী ও তার পিতা জজ মিয়া ও বড় ভাইয়ের স্ত্রী কনিকা বেগম নববধূর নিকট ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। ওই সময় নববধু দাবিকৃত যৌতুক দিতে অপরগতা প্রকাশ করলে ওই সময় পাষান্ড স্বামী ও শ্বশুড় ও ভাবী ক্ষিপ্ত হয়ে নববধূকে বেদম ভাবে পিটিয়ে আহত করে। পরে এক পর্যায়ে আহত নববধূকে বাড়ী থেকে বিতারিত করে। বর্তমানে আহত নববধূ স্বামীর বাড়ী থেকে বিতারিত হয়ে বর্তমানে তার পিতার বাড়ীতে রয়েছে। এ ব্যাপারে বন্দর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

Translate »